WELCOME TO NANDAIL NEWS - REFLECTION OF TIME - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ - সময়ের প্রতিচ্ছবি - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ -সময়ের প্রতিচ্ছবি - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ - সময়ের প্রতিচ্ছবি - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ -সময়ের প্রতিচ্ছবি - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ - সময়ের প্রতিচ্ছবি - স্বাগতম- নান্দাইল নিউজ - সময়ের প্রতিচ্ছবি

22 July 2014


প্রসূতির দেহে ওষুধ প্রয়োগ করেন ঝাড়ুদার ও বাবুর্চি
নান্দাইল হাসপাতালে সেবিকার অবহেলায় নবজাতকের মৃত্যুর অভিযোগ!
স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের প্রসূতি ওয়ার্ডে গত সোমবার রাত আটটায় এক নবজাতকের মৃত্যুর ঘটনায় সেবিকার কক্ষ অবরোদ্ধ ও বিক্ষোভের ঘটনা ঘটেপরে খবর পেয়ে পুলিশ হাসপাতালে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে
হাসপাতালে গিয়ে জানা যায়, উপজেলার ঘোষপালা গ্রামের প্রসূতি সেলিনা আক্তার (২২) প্রচন্ড প্রসব বেদনা নিয়ে  গত সোমবার সকাল সাড়ে ৭ টায় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে যানএ সময় দোতলায় অবস্থিত সেবিকাদের কক্ষ বন্ধ দেখতে পেয়ে প্রসূতির স্বজনেরা সেখানে অপেক্ষা করতে থাকেনএক ঘন্টা পর প্রসূতিকে ওই ওয়ার্ডে ভর্তি করা হয়

প্রসূতির মা আম্বিয়া খাতুন (৫৫) জানান, এ সময় সেখানে কর্তব্যরত সেবিকা প্রসূতির অবস্থা পর্যবেক্ষণ করে একটি স্যালাইন ও কয়েকটি ইঞ্জেকশান নিয়ে আসতে বলেনআম্বিয়া বলেন, প্রসূতির চিকিৎসা শুরু করার জন্যে সেবিকাদের বারবার অনুরোধ জানানোর পরও তাঁরা সেখানে না এসে একজন নারী বাবুর্চি ও একজন নারী  ঝাড়ুদারকে পাঠিয়ে দেনতাঁরা প্রসূতির দেহে স্যালাইন ও ইঞ্জেকশান প্রয়োগ করেনস্বজনদের অভিযোগ দুপুর ১২টা নাগাদ অবস্থার পরিবর্তন না ঘটলে তাঁরা প্রসূতিকে জেলা সদরে নিয়ে যেতে চানকিন্তু হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ তাতে রাজী না থাকায় তাঁরা নিতে পারেননিএমনকি স্যালাইন শেষ হওয়ায় পর নল দিয়ে রক্ত উঠতে শুরু করলে প্রসূতির শরীর থেকে সূঁচ খোলার জন্যে সেবিকাদের সহায়তা চেয়ে পাননিবরং সেবিকারা তাদের সাথে দুর্বব্যবহার  করেনএ অবস্থায় প্রসূতি মৃত সন্তান প্রসব করলে স্বজনেরা কর্তৃপক্ষের অব্যবস্থাপনার অভিযোগ তুলে ক্ষোভ প্রকাশ করতে থাকেনমৃত সন্তান প্রসবের জন্যে তাঁরা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে দায়ি করেনপরিস্থিতি ক্রমেই উত্তেজনাকর হয়ে উঠলে পুলিশ গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে  সিনিয়র সেবিকা হোসনে আরার কাছে নবজাতকের মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বিষয়টি নিয়ে চিকিৎসকের সাথে কথা বলতে বলেনপ্রসূতি ওয়ার্ডে ঝাড়ুদার ও বাবুর্চির দায়িত্ব পালনের বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি মন্তব্য করতে রাজী হননি

 এ বিষয়ে  তখন দায়িত্বরত চিকিৎসক মো. মশিউর রহমান বলেন, প্রসূতির অবস্থা ভাল ছিলআমাদের চিকিৎসার কোন ত্রুটি ছিল নাতবে কর্মরত সেবিকারা প্রসূতি ওয়ার্ডে দায়িত্ব পালনকারী ঝাড়ুদার ও বাবুর্চির পরিচয় গোপন করে সাংবাদিকদের বিভ্রন্তিতে ফেলার চেষ্টা করেনপরে খোঁজ নিয়ে জানা যায় রিনা আক্তার হাসপাতালের বাবুর্চি হিসেবে কর্মরত অন্যদিকে অঞ্জনী রানী মাস্টার রোলে ঝাড়ুদার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে

নান্দাইল মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাইফুল ইসলাম ফরাজী বলেন প্রসূতির অভিভাবকরা অভিযোগ দিলে আইনগত ব্যবস্থা নেবে পুলিশ

21 July 2014

নান্দাইলে ইসরাইলী হামলার প্রতিবাদে মানববন্ধন  
স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা পরিষদের সামনে কিশোরগঞ্জ-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর গাজায় ইসরাইলী গণহত্যার প্রতিবাদে নান্দাইলবাসীর ব্যানারে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করা হয়

 আজ সোমবার দুপুরে ঘন্টাব্যাপী দীর্ঘ লাইনের এই মানববন্ধন শেষে এক সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়এতে আলী আসকার খান, লুৎফর রহমান, ইমদাদুল্লাহ প্রমূখ বক্তব্য রাখেন

বক্তারা এই গণ হত্যাকান্ডের তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে তা অবিলম্বে বন্ধ করার জোর দাবি জানান 

19 July 2014


ফলোআপ.................
নান্দাইলে সংখ্যালঘু বৃদ্ধকে অপহরণ করে স্ট্যাম্পে টিপসই নেয়ার ঘটনায় মামলা
স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার মধ্য গয়েশপুর গ্রামে সন্তোষ শীল নামে এক ব্যক্তিকে অপহরণ করে সাদা স্ট্যাম্পে টিপসই আদায় করার ঘটনায় জড়িত পাঁচ ব্যক্তির বিরুদ্ধে দ্রুত বিচার আইনে মামলা নিতে আদালত থানার ওসিকে নির্দেশ দিয়েছেন দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল আদালতের বিচারক

গত বৃহস্পতিবার ওই বৃদ্ধ আদালতে পাঁচজনকে অভিযুক্ত করে মামলা দায়ের করলে বিচারক ফারজানা ইয়াসমীন এ নির্দেশ দেনআসামিরা হলেন, নান্দাইল উপজেলার গাংগাইল ইউপি সদস্য মো. ফয়জুর রহমান ফরিদ, মো. সাইদুর রহমান, আঞ্জু মিয়া, বিপুল প্রসন্ন রায়, নান্দাইল নিবন্ধন অফিসের দলিল লেখক এনামুল হক

নান্দাইল মডেল থানার ওসি মো. সাইফুল ইসলাম ফরাজী বলেন, তিনি আদালতের নির্দেশ অনুযায়ী ব্যবস্থা নিচ্ছেনআসামিদের গ্রেফতারের চেষ্টা করছে পুলিশ

গত ৭ জুলাই সন্তোষ শীলকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে নিয়ে যায়পরে উপজেলা সদরের একটি বাসায় আটকে রেখে ব্যাপক মারধর ও ইঞ্জেকশন প্রয়োগ করে তার কাছ থেকে সাদা স্ট্যাম্পে স্বাক্ষর রেখে অসুস্থ অবস্থায় বাড়িতে ফেলে যায় চক্রের সদস্যরা

15 July 2014


নান্দাইলে সংখ্যলঘু পরিবারের বৃদ্ধকে অপহরণ করে ষ্ট্যাম্পে টিপসহি আদায়ের অভিযোগ !

স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
 ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলার গাংগাইল ইউনিয়নের মধ্য গয়েশপুর গ্রামের এক সংখ্যালঘু পরিবারের গৃহকর্তাকে অপহরণ করে বেশ কয়েকটি সাদা ষ্ট্যাস্পে টিপসই রেখে অর্ধচেতন অবস্থায় তাঁকে বাড়িতে ফেরত দেয়া হয়েছেএক ইউপি সদস্যের নেতৃত্বে তিন ব্যক্তি এ কাজে জড়িত বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে

গত সোমবার বিকেলে শ্রবণ প্রতিবন্ধী সন্তোষ চন্দ্রশীল (৮০) সাংবাদিকদের কাছে অভিযোগ করে নিজের দুরবস্থার কথা প্রকাশ করে কেঁদে ফেলেনতিনি বলেন, গত ৭ জুলাই বিকেলে চেয়ারম্যানের সাথে দেখা করার কথা বলে তাঁকে ডেকে নিয়ে যান ইউপি সদস্য মো. ফরিদ, আঞ্জু মিয়া ও বিপুল প্রসন্ন রায়তাঁকে অজ্ঞাত একটি স্থানে আটকে রাখা হয়গভীর রাতে ওই তিন ব্যক্তি তাঁর সামনে কয়েকটি সাদা ষ্ট্যাম্প রেখে টিপসই দিতে বলেনতিনি রাজী না হলে তাঁর বা হাতে একটি স্যালাইন পুশ করে বিপুল প্রসন্ন রায়এর কিছুক্ষণ পর ওই তিন ব্যক্তি সাদা ষ্ট্যাম্পগুলোতে তাঁর অসার হাতের বৃদ্ধাঙ্গুলির কয়েকটি ছাপ নেয়পরে গভীর রাতে বাড়িতে রেখে যায়

গতকাল মঙ্গলবার দুপুরে বৃদ্ধের অভিযোগ যাচাই করতে মধ্য গয়েশপুর গ্রামে গেলে তাঁর ভাতিজা প্রদীপ চন্দ্র শীল (২৮) বলেন, ঘটনার পরদিন সকালে (৮ জুলাই) তিনি ঘরে গিয়ে দেখতে পান সন্তোষ শীল গুরুতর অসুস্থএকজন সুস্থ মানুষ কিভাবে হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ল তা তিনি (বিপুল) চাচির কাছে জানতে চানচাচি মিলন রাণী শীল (৭০) তাঁকে বলেন, যারা সন্তোষকে ডেকে নিয়েছিল তারাই এ অবস্থায় ফেরত দিয়ে গেছেমিলন রাণী শীলের কাছে জানতে চাইলে তিনি এ প্রতিবেদকের কাছে ফরিদ মেম্বার, আঞ্জু মিয়া ও বিপুলের নাম উল্লেখ করে সন্তোষকে বাড়ি থেকে নিয়ে যাবার কথা বলেন

গ্রাম ঘুরে জানা যায়, সন্তোষের দুই মেয়ে ঊষা রাণী শীল ও রাধা রাণী শীলকে বিয়ে দেবার পর তিনি স্ত্রী মিলন রাণীকে নিয়ে গ্রামেই বসবাস করেনতাঁর শাশুড়ি তাঁকে (সন্তোষকে) ২০ শতক ও তাঁর দুই মেয়েকে ৮০ শতক জমি দিয়ে গেছেনসেই জমির ফসল দিয়েই সংসারের ভরণ পোষণ চলেমেয়েরাও সেখান থেকে কিছু পায়সন্তোষ অভিযোগ করে বলেন, সমস্যার শুরু গত বোরো মওসুমেফসল কাটার সময় এলাকার ইউপি সদস্য মো. ফরিদ মিয়া, আঞ্জু মিয়া ও বিপুল কিছু লোক এসে ওই জমি তাদের বলে দাবি করেতাঁকে (বৃদ্ধকে) ফসল কাটতে বাধা দেনহঠাৎ এরকম দাবি ওঠায় তিনি হতভম্ব হয়ে পড়েনবিষয়টি তিনি এলাকার লোকজনের পরামর্শে ঘটনাটি নান্দাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক চৌধুরীকে অবহিত করেনচেয়ারম্যান এ ধরনের অভিযোগ পাবার সত্যতা স্বীকার করে বলেন,তিনি মুঠোফোনে ওই বৃদ্ধের জমির মালিকানা দাবি করা বিষয়ে বিপুল প্রসন্ন রায়কে প্রশ্ন করেছিলেনকিন্তু সে সময় তিনি জমি ক্রয়ের বায়নাপত্র থাকার দাবি করলেও সেটি নিবন্ধিত ছিল না বলে তাঁকে জানিয়ে ছিলেনপরে তিনি বিপুলের লোকজনকে জমিতে না যাওয়ার নির্দেশ দেন
ঊষা রাণী (৪৫) বলেন, বাবার বাড়িতে বেড়াতে এলে রাতের বেলা তাদের ভয় দেখানো হতসেজন্যে তাঁরা অন্যের বাড়িতে গিয়ে রাতযাপন করতেনতিনি আরও বলেন, চাচাত বোনের বিয়ে উপলক্ষে গত ৮ জুলাই বাবার বাড়িতে এসে বাবাকে অসুস্থ দেখতে পানপরে মায়ের সাথে কথা বলে জানতে পারেন আগের দিন (৭জুলাই) বিকেলে ইউপি সদস্য মো. ফরিদ মিয়া,আঞ্জু মিয়া,বিপুলসহ আরও কিছু লোক তাঁর বাবাকে বাড়ি থেকে তুলে নিয়ে যায়রাতের বেলা অর্ধচেতন অবস্থায় বাবাকে বাড়িতে ফেলে যায়সন্তোষ শীলের স্ত্রী মিলন রাণী জানান, পরদিন সকালে স্বামীকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বা হাতের আঙ্গুল দেখিয়ে বলেন ফরিদ মেম্বার, আঞ্জু মিয়া ও বিপুলের  লোকজন ভয় দেখিয়ে বেশ কয়েকটি সাদা ষ্ট্যাম্পে টিপসই রাখে

এলাকায় গিয়ে অভিযোগ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে ইউপি সদস্য ফরিদ বলেন, ওই বৃদ্ধের কাছ থেকে ৬০ শতক জমি তিনিসহ আঞ্জু মিয়া, বিপুল প্রসন্ন রায় ক্রয় করেছেনজমি বিক্রি হলে গ্রামের অন্য লোকজনের তো জানার কথাতাহলে ঘটনাটি গ্রামের কেউ জানল না কেনএ প্রশ্নের সদুত্তর দিতে পারেননি তিনিবিপুল প্রসন্ন রায় দাবি করেন তাঁরা ওই বৃদ্ধকে অপহরণ করেননিতিনি (বৃদ্ধ)স্বেচ্ছায় তাদের সাথে গিয়ে ষ্ট্যাম্পে টিপসই দিয়েছেনএমনকি জমি কাওলাও হয়েছে বলে দাবি জানান


13 July 2014

পরিচয়বিহীন প্রতিবন্ধী শিশুটি হাসপাতালে যন্ত্রনায় কাতরাচ্ছে !

স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
মায়াভরা দুটি চোখে কেবলই যন্ত্রণার ছাপগো গো আওয়াজ করা ছাড়া তার মুখে কোন ভাষা নেইভাঙ্গা হাত নিয়ে এভাবেই ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের শয্যায় গত ১০ দিন ধরে পড়ে আছে প্রতিবন্ধী এই শিশুটিহাসপাতালের খাতায় শিশুটির বয়স দশ বছর ও পরিচয়ের কলামে অজ্ঞাত হিসেবে উল্লেখ করা রয়েছেজরুরি বিভাগ সূত্রে জানা যায় গত ৩ জুলাই এক সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত শিশুটিকে কয়েকজন পথচারী হাসপাতালে রেখে যানএই দিনগুলোতে কেউ তার খোঁজ নেয়নি

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে দেখা যায়, চাদরবিহীন একটি ময়লা শয্যায় শিশুটি বসে আছেপড়নে কোন কাপড় নেইচোখে মুখে কেবলই যন্ত্রণার ছাপতার বাঁ হাতটি শরীরের সাথে ঝুলে রয়েছেশরীর নাড়াচাড়া করতে গেলে অসার হাতটিকে ডান হাত দিয়ে ধরে রাখতে হচ্ছেআশেপাশের শয্যায় থাকা রোগীদের জিজ্ঞেস করে জানায়, তাঁরা গত ১০দিন ধরে শিশুটিকে দেখছেনকিন্তু কাউকে তার খোঁজ নিতে দেখেননি

ব্যবস্থাপত্রের সাথে থাকা এক্স-রে ফিল্মটি দেখিয়ে একজন সেবিকা বলেন, শিশুটির  বাম হাতের কনুইয়ের ওপরের দিকে একটি হাড় ভেঙ্গে আলাদা হয়ে পড়েছেহাসপাতালে অর্থোপেডিক্স চিকিৎসক না থাকায় গত এক সপ্তাহ যাবৎ শিশুটির ভাঙ্গা হাতটি প্লাষ্টার করা সম্ভব হয়নিশিশুটির চিকিৎসা বলতে গেলে কিছু ব্যথানাশক বড়ি খাওয়ানো হয়েছেহাসপাতালে কর্মরত সেবিকারা শিশুটির দেখাশোনা করছেন

নান্দাইল উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা চিকিৎসক মো. আবুল কাশেম বলেন, এই স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে অর্থোপেডিক্সের চিকিৎসক নেইহাসপাতালে ব্যথা নাশক ইঞ্জেকশান না থাকায় তিনি বাইরে থেকে তা যোগাড় করে দিয়েছেনএতে কোন কাজ না হওয়ায় শিশুটিকে বিশেষ ব্যবস্থায় ময়মনসিংহ মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হবে 

01 July 2014

নান্দাইলে এক্সট্রিনসিক এডুকেশন বিষয়ে কর্মশালা

স্টাফ রিপোর্টার ●  নান্দাইল নিউজ
ময়মনসিংহের নান্দাইল উপজেলায় আজ মঙ্গলবার বিকেলে এক্সট্রিনসিক এডুকেশন বিষয়ে এক কর্মশালা শহীদ স্মৃতি আদর্শ ডিগ্রি কলেজ ক্যাম্পাসের হলরুমে অনুষ্ঠিত হয়েছে

লন্ডন, অষ্ট্রেলিয়া কানাডা, ইউরোপ এবং এশিয়ার বিভিন্ন দেশে শিক্ষার জন্যে গমনেচ্ছুকদের নিয়ে এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়অধ্যক্ষ (ভারপ্রাপ্ত) আকরাম হোসেনের সভাপতিত্বে এই অনুষ্ঠানে নান্দাইল উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল মালেক চৌধুরী প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেনসেমিনারে বক্তব্য রাখেন এডভোকেট ভূঁইয়া এম জেড অপু, সাংবাদিক আলম ফরাজী, ‘এক্সট্রিনসিক এডুকেশন-এর ময়মনসিংহ অঞ্চলের আহবায়ক কবিরুল ইসলাম বাবুল প্রমূখ

উক্ত কর্মশালায় বিভিন্ন পর্যায়ের শিক্ষার্থীরা অংশ গ্রহণ করে অনুষ্ঠানটি প্রাণবন্ত করে তুলেন  

PHOTO GALLARY

অনুমতি ছাড়া এই ওয়েবসাইট-এর কোন-ও অংশ, লেখা বা ছবি নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা বেআইনি|

No part of content of this website may be copied or reproduced without permission.

NANDAIL NEWS PHOTO GALLARY